5 টি সেরা কলিং অ্যাপ | ফ্রী HD ভিডিও এবং অডিও কলিং অ্যাপস

অনলাইন জগতে বর্তমানে ভিডিও কল সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি মাধ্যম. এই ভিডিও কলের মাধ্যমে একে অন্যের সাথে এবং কি গ্রুপেও এক সঙ্গে কথা বলতে পারে. অনলাইনে হাজার হাজার “ফ্রি কলিং অ্যাপ” বা চ্যাট করার অ্যাপ আছে. এর মধ্যে থেকে আমরা অনেক অ্যাপ ব্যবহার করতে অনেক সমস্যায় ভোগে.
তাই আমি আজকে পাঁচটি “সেরা কলিং অ্যাপ” সম্পর্কে বলবো.

 

আমাদের অ্যাপ ডাউনলোড করুন Flower2.6K Active Installations

জনপ্রিয় কলিং অ্যাপ বা ফ্রি কলিং অ্যাপ যেটাই বলেন না কেন অনলাইনে সার্চ করলে হাজার হাজার ফলাফল আপনার সামনে আসবে.

 

আপনারা হয়তো অনেকেই অনলাইন থেকে অনেক সেরা কলিং অ্যাপ ডাউনলোড করে ব্যবহার করেছেন. এবং অনেক সমস্যায় পড়েছেন. অনলাইনে অনেক ভিডিও কলিং অ্যাপ বা ফ্রি চ্যাটিং অ্যাপ আছে যেগুলো ভাল সার্ভিস দেয় না.

যেমন অনেকে আছে যেগুলো আমাদের বিরক্তিকর আর সীমা থাকে না. ধরুন আপনি যখন একজনের সাথে কথা বলতেছেন তখন যদি আপনার কথা স্পষ্ট শোনানো যায় তাহলে আপনার কেমন লাগবে?

নিশ্চয়ই আপনার খারাপ লাগবে.
এবং আপনি গুগল এসে সার্চ করবেন:

“সেরা কলিং অ্যাপ” ,”ফ্রি কলিং অ্যাপ”,”সেরা ভিডিও কলিং অ্যাপ “,”জনপ্রিয় ভিডিও কলিং অ্যাপ”

ইত্যাদি লিখে , তখন গুগল মামা আপনাকে হাজার হাজার ফলাফল দিবে আপনি সঠিক কোন সাইটে এ সম্পর্কিত আর্টিকেল আছে সেটি খুঁজে পাওয়া অনেক কষ্টকর.

তাই আজকে আমি এই সমস্যা থেকে মুক্তি দেবার জন্য ইনশাআল্লাহ চেষ্টা করে যাবো.
আজকে আমরা জানব “সেরা কলিং অ্যাপ” সম্পর্কে

আজকে আমি আপনাদের সম্পূর্ণ ধারণাটা দেব সেরা কলিং অ্যাপ সম্পর্কে এই কলিং অ্যাপ গুলো এই ফ্রি কলিং অ্যাপ গুলো ব্যবহার করার ফলে আপনারা কোন ঝামেলা বিহীন কথা বলতে পারবেন যদি নেটওয়ার্ক খারাপ হয় তাহো কোন সমস্যা হবে না.

5 টি সেরা কলিং অ্যাপ

(সেরা কলিং অ্যাপ)

 

#1 Google Dou

সেরা কলিং অ্যাপ

বর্তমানের সেরা কলিং অ্যাপ গুলোর মধ্যে গুগল ডু সবচেয়ে জনপ্রিয়. ভিডিও কলিং এর ক্ষেত্রে এটি খুবই জনপ্রিয় একটি ফ্রি কলিং অ্যাপ.

এই সেরা কলিং অ্যাপটির বিশেষ সুবিধা হলো এটি সবচাইতে ক্লিয়ার ভয়েস এবং ভিডিও কল দেওয়া যায়. আপনার নেট কানেকশন যদি একটু দুর্বল হয় তাহলে কোন সমস্যা নেই এই অ্যাপটি আপনার ইন্টারনেট এর উপর কোনো প্রভাব ফেলবে না.

এই ফ্রি কলিং অ্যাপটি গুগল দ্বারা নির্মিত একটি এন্ড্রয়েড এবং আইফোনের অপারেটিং সিস্টেমের এপ্লিকেশন সফটওয়্যার. এই অ্যাপটি গত 16 ই আগস্ট 2016 তে পাবলিশ করা হয় বুঝতেই পারছেন এত অল্প সময়ে অনেক জনপ্রিয় কলিং অ্যাপ হয়েছে.

গুগল ডু সেরা কলিং অ্যাপ টি আপনাকে উচ্চমাত্রায় ভিডিও কলিং দেবার সক্ষমতা রাখে তাই আমি বলবো আপনারা ভালো কলিং অ্যাপ খুঁজে থাকলে এই সেরা কলিং অ্যাপটি ডাউনলোড করুন

 

ডাউনলোড করুন

 

#2 Telegram

সেরা কলিং অ্যাপ

গুগল ডু ভিডিও কলিং অ্যাপ এর পর সবচাইতে সেরা টেলিগ্রাম সেরা কলিং অ্যাপ.

টেলিগ্রাম সেরা কলিং অ্যাপ এর কারণ হলো এটি ক্লাউড সার্ভার ভিত্তিক অ্যাপ্লিকেশন.
এদের পৃথিবীর অনেক দেশে সার্ভার রয়েছে আপনি যেখানে রয়েছেন তার আশেপাশের সার্ভার থেকে আপনার সাথে যোগাযোগ করে যার জন্য এটি খুবই দ্রুত কাজ করে এবং কম ইন্টারনেট খরচ করে.

এই অ্যাপটির অনেক সুবিধা আছে যেমন এটি থেকে আপনারা 10 জিবি এর মত ফাইল ক্লাউড স্টোরেজের রাখতে পাবেন ফটো ভিডিও স্টিকার পাওয়ারফুল টেক্সট সেন্ডিং ইত্যাদি সুবিধা পাবেন.

সেরা কলিং অ্যাপ গুলোর ভিতরে এই অ্যাপটি একটু অন্যরকম কারণ এই অ্যাপটি ব্যবহার করে অন্য সব অ্যাপ এর মত কাজ করতে পারবেন কিন্তু ভিডিও কল এর অপশন বা ফিচারটি নেই তবে সবচাইতে অডিও কলিং বেস্ট.

এই সেরা কলিং অ্যাপ এর ফিচার গুলো দেখে আমি মুগ্ধ যার কারণে আমি এই অ্যাপটি ব্যবহার করে থাকি.

আপনাদের যদি এই সেরা কলিং অ্যাপটি দরকার হয় তাহলে ডাউনলোড করে নিবেন

 

ডাউনলোড করুন

 

#3 Whatsapp

সেরা কলিং অ্যাপ

সেরা কলিং অ্যাপের তৃতীয় নম্বর সিরিয়ালে আছে হোয়াটসঅ্যাপ ম্যাসেঞ্জার.

আপনারা হয়তো অনেকেই হোয়াটস্যাপ মেসেঞ্জার এর নাম শুনে থাকবেন আর যারা এটি ব্যবহার করেছেন তারা হয়তো এর সুবিধা সমূহ সম্পর্কে জেনেছেন এবং ভোগ করেছেন.

এই অ্যাপটি সবচেয়ে পাওয়ারফুল চ্যাটিং অ্যাপ হিসেবে পরিচিত হ্যাক হওয়া থেকে আপনাকে রক্ষা করতে পারে এবং এই অ্যাপের মাধ্যমে ভিডিও অডিও কল অনায়াসে করা যাবে উচ্চমাত্রায়.

সেরা কলিং অ্যাপের মধ্যে এই অ্যাপটি আমার খুব ভালো লাগে অ্যাপের মাধ্যমে ইমেজ ভিডিও ফাইল স্টিকার ইত্যাদি আদান-প্রদান করা যাবে.
বর্তমানে হোয়াটস্যাপ মেসেঞ্জার এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় 2 বিলিয়ন এর বেশি.

তাই আপনি যদি এখনো সেরা কলিং অ্যাপের এই হোয়াটসঅ্যাপ মেসেঞ্জার টি ব্যবহার করে না থাকেন তাহলে এখনি ব্যবহার করুন.

 

ডাউনলোড করুন

#4 Skype

সেরা কলিং অ্যাপ

আপনার ইন্টারনেট কোন প্রবলেম বা সমস্যা থাকলে এই সেরা কলিং অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন. স্কাইপি ভিডিও সেরা কলিং অ্যাপ এই সেরা কলিং অ্যাপ এর মাধ্যমে ভিডিও অডিও চ্যাটিং এবং পিকচার ফাইল ভিডিও ইত্যাদি পাঠাতে পারবেন.

এই অ্যাপের ভিডিও এবং অডিও ভয়েস কোয়ালিটি অনেকগুণ হাই কোয়ালিটি সম্পূর্ণ.

স্কাইপি সেরা কলিং অ্যাপ মাইক্রোসফ্ট কর্তিক একটি অ্যাপ
স্কাইপি সেরা কলিং অ্যাপ এর মাধ্যমে আপনারা যে কোন নাম্বারে কল করতে পারেন ক্রেডিট ক্রয় করে

এই অ্যাপের আরো অনেক সুবিধা আছে যারা এই অ্যাপটি ব্যবহার এখনও করেননি তারা এখনি ডাউনলোড করে নিন এই সেরা কলিং অ্যাপটি

 

ডাউনলোড করুন

 

#5 Messenger

সেরা কলিং অ্যাপ

ফেসবুক মেসেঞ্জার অনেকেই আপকে শুধুমাত্র মেসেঞ্জার বলে. আপনারা হয়তো ফেসবুক ব্যবহার করে থাকেন এবং অনেক সময় অন্যের সাথে বা পরিবার বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ করে থাকেন এই মেসেঞ্জার অ্যাপ এর মাধ্যমে.

জানেন কি এই মেসেঞ্জার অ্যাপটি সেরা কলিং অ্যাপ এর মধ্যে অন্যতম. কারণ এই অ্যাপ এর সুবিধা হলো একটি ফেসবুক একাউন্ট থাকলে এই সেরা কলিং অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন.

সেরা কলিং অ্যাপ হিসেবে অধিক এবং উচ্চ কোয়ালিটি সম্পূর্ণ ভিডিও অডিও কল এই অ্যাপটির মাধ্যমে করতে পারেন.

এই সেরা কলিং অ্যাপ বা সেরা মেসেজিং অ্যাপ চ্যাটিং অ্যাপ যেটি বলেন আমি এটি পছন্দ করি কারণ এর ভয়েস এবং ভিডিও কোয়ালিটি অনেক ভালো.

আপনি যদি এখনো এই সেরা কলিং আপনি ব্যবহার করে না থাকেন তাহলে এখনই ডাউনলোড করুন

 

ডাউনলোড করুন

 

আশা করছি আপনাদের আমি ভালোভাবে সেরা কলিং অ্যাপ বা সেরা উচ্চ কোয়ালিটি সম্পূর্ণ অ্যাপ সম্পর্কে ধারনা দিতে পেরেছি.

এগুলো আমি অনলাইন থেকে বিভিন্ন তথ্যের আলোকে এবং আমার নিজের অভিজ্ঞতার সাথে মিল রেখে সেরা কলিং অ্যাপ গুলো আপনাদের মাঝে তুলে ধরলাম আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন.

যদি আপনার কোনো পছন্দের অ্যাপ থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন.

এবার আসা যাক একটি সেরা এবং জনপ্রিয় কলিং অ্যাপ নিয়ে.

অনেক কলিং অ্যাপ আছে যেগুলো সেরা কিন্তু লোকেরা সেগুলো ব্যবহার করে খুবই কম তাই সেগুলো জনপ্রিয় নয় এখন আমরা একটি জনপ্রিয় অ্যাপ সম্পর্কে জানব.

ভিডিও এবং অডিও কলিং হিসেবে জনপ্রিয় এক হলো ইমু মেসেঞ্জার.

#00 Imo

সেরা কলিং অ্যাপ

আমার দেখা বাংলাদেশের সবচাইতে বেশি জনপ্রিয় এপ্লিকেশন এবং ভিডিও কলিং অ্যাপ্লিকেশন বলতে আমরা ইমু ব্যবহার করি.

আপনি কি কখনো ইমু ব্যবহার করেছেন?

এবং আপনি একটি জিনিস লক্ষ্য করেছেন যে এই অ্যাপটির কথা বলার সময় বা ভিডিও কলের বা অডিও কলের সময় অনেক বাফারিং করে বা কথা সুস্পষ্ট বোঝা যায় না.

যার কারণে ইমু জনপ্রিয় কলিং অ্যাপ হলেও সেরা কলিং অ্যাপ হতে পারেনি.

আমার দেখা সবচাইতে বাজে কলিং অ্যাপ হল ইমো এর ভয়েস কোয়ালিটি ভিডিও কলিং কোয়ালিটি অনেক খারাপ.

আমাদের দেশের অনেকে এই অ্যাপটি ব্যবহার করে থাকে এবং তাদের আত্মীয়-স্বজন প্রবাসীদের সাথে যোগাযোগ করে থাকে আমি একটাই বলবো আপনারা এই অ্যাপটি আস্তে আস্তে বাদ দিয়ে দিবেন কারন এই অ্যাপটির যেমন যন্ত্রণাদায়ক তেমনি অসস্তিকর.

তবে ইমোর আরেকটি সুবিধা হল এই অ্যাপটি খুবই সহজ এবং যে-কেউ সহজে ব্যবহার করতে পারে খুবই ক্লিন লে-আউট চাইলে যে কেউ এর অ্যাকাউন্ট সহজেই তথা এক ক্লিকের মাধ্যমে খুলতে পারে

এই জনপ্রিয় বাজে আপনি ডাউনলোড করতে পারেন

 

ডাউনলোড করুন

আপনারা যারা এতদিন যাবৎ সেরা কলিং অ্যাপ নিয়ে সমস্যায় ভুগতেছেন বা অনলাইনে খুঁজে এর সমস্যা সমাধান করতে পারছেন না তাদের জন্য আজকে এই সমাধানটি খুবই কার্যকর হবে আমি মনে করি.

 

আমাদের আরো কিছু টিউটোরিয়াল

 

 

 

আজকে পর্যন্তই কেমন হলো আজকের এই সেরা কলিং অ্যাপ এর রিভিউ একটু কমেন্ট করে জানাবেন প্লিজ

আমাদের অ্যাপ ডাউনলোড করুন Flower2.6K Active Installations

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *